মেসির হ্যাটট্রিকে বার্সার বড় জয়

লিওনেল মেসি মৌসুমের প্রথম হ্যাটট্রিকের দেখা পেয়েছেন। তার হ্যাটট্রিকে ভর করে বার্সেলোনা পেয়েছে বড় জয়। সেল্টা ভিগোকে হারিয়েছে ৪-১ ব্যবধানে। এই জয়ের ফলে লা লিগার পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষেও উঠেছে কাতালানরা।

ঘরের মাঠে শনিবার রাতে ম্যাচের ২৩ মিনিটেই এগিয়ে যায় বার্সা। এ সময় ডি বক্সের মধ্যে সেল্টা ভিগোর জোসেফ আইদো বল হাতে লাগান। রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজায়। মেসি পেনাল্টি থেকে গোল করে এগিয়ে নেন দলকে। অবশ্য ম্যাচের ৪২ মিনিটেই সমতায় ফেরে সেল্টা ভিগো। এ সময় ডি বক্সের সামনে ফ্রি কিক পায় তারা। ফ্রি কিক থেকে দুর্দান্ত এক গোল করে সমতা ফেরান লুকাস ওলাজা।

অবশ্য এই সমতা বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে দেননি মেসি। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে (৪৫+১) ডি বক্সের সামনে ফ্রি কিক পায় বার্সা। ফ্রি কিক স্পেশালিস্ট মেসি সেটা থেকে গোল আদায় করে নিতে ভুল করেননি। তার দারুণ বাঁকানো শট জালে আশ্রয় নেয় বিনা বাধায়। তাতে ২-১ গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় ভালভার্দের শিষ্যরা।

বিরতি থেকে ফিরে এসেই হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। ৪৮ মিনিটের মাথায় আবার ফ্রি কিক পায় বার্সা। আবার চোখে লেগে থাকার মতো দুর্দান্ত কিক নেন মেসি। যথারীতি আবার গোল। এটা শুধু গোলই না, তার চেয়ে বেশি কিছু। এই গোলে যে মৌসুমের প্রথম হ্যাটট্রিক পূর্ণ হয়েছে মেসির। এটা লা লিগায় মেসির ৩৪তম হ্যাটট্রিক। যার মাধ্যমে মেসি ছুঁয়েছেন রোনালদোর করা সবচেয়ে বেশি হ্যাটট্রিকের রেকর্ড।

ম্যাচের ৮৫ মিনিটে সেল্টা ভিগোর পরাজয়ের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকেন বদলি খেলোয়াড় হিসেবে নামা সার্জিও বুসকেটস। এ সময় ডি বক্সের বাইরে বামদিকে বল পেয়ে যান বুসকেটস। বল পেয়ে বেশ সময় নিয়ে শট নেন। বল জালে আশ্রয় নেয়। সামনে থাকা সেল্টা ভিগোর চারজন রক্ষণভাগের খেলোয়াড় এবং গোলরক্ষকের চেয়ে চেয়ে দেখা ছাড়া কোনো উপায় ছিল না।

এই জয়ের ফলে ১২ ম্যাচ থেকে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান নিয়েছে কাতালানরা। সমান ম্যাচ থেকে রিয়াল মাদ্রিদেরও সংগ্রহ ২৫ পয়েন্ট। তবে তারা গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থেকে অবস্থান করছে দ্বিতীয় স্থানে।

ঢাকা/আমিনুল

Source