লালমনিরহাটে শিক্ষায় ভূমিকা রাখছে ফাকল স্কুল

আধুনিক পাঠদান পদ্ধতি আর ধারাবাহিক সাফল্যের কারণে লালমনিরহাটের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর একটিতে পরিণত হয়েছে পুলিশ লাইন্স ফাকল স্কুল এন্ড কলেজ।

জেলা পুলিশ কর্তৃক পরিচালিত বিশেষায়িত এ স্কুলটি ২০০৫ সালে তৎকালীন পুলিশ সুপার মেজবাহ উদ্দিন পিপিএম প্রতিষ্ঠা করেন। সে সময়ে মাত্র ৩০০ শিক্ষার্থী নিয়ে শুরু হয় এর পথচলা। যেখানে প্লে গ্রুপ থেকে চতুর্থ শ্রেণি পর্যন্ত সীমিত সংখ্যক শিক্ষার্থীরা ভর্তি হতে পেরেছিল।

স্কুল সূত্রে জানা গেছে, প্রাথম দিকে স্কুলের নতুন শিক্ষার্থীদের জন্য পর্যাপ্ত আসন ছিল না। শিক্ষকদের সংখ্যা কম থাকার পাশাপাশি ছিল না পর্যাপ্ত শ্রেণিকক্ষ ও অন্যান্য অবকাঠামো। মাত্র ৩০০ জন শিক্ষার্থীর জন্য একাডেমিক কার্যক্রম অপর্যাপ্ত অবকাঠামো এবং শিক্ষক সংকটের কারণে স্কুল পরিচালনা ব্যাহত হতো।

তখন শিক্ষক সংখ্যা ছিল মাত্র ১৩ জন এবং কোনো কম্পিউটার ল্যাব ছিল না, ছিল না একটি পৃথক প্রশাসনিক ভবনও।

স্কুল প্রতিষ্ঠার ১০ বছর পর ২০১৬ সালেই প্রথমে এ স্কুলে এইচএসসি ক্লাস চালু করা হয়। এবং স্কুলের নিজস্ব তহবিল ও স্থানীয় শিক্ষানুরাগীদের সহায়তায় প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৫ হাজার বর্গফুটের একটি চারতলা ভিত্তিবিশিষ্ট তিনতলা আধুনিক ভবন নির্মাণ করা হয় এবং বাড়ানো হয় শিক্ষকের সংখ্যা।

ভবনটিতে শ্রেণিকক্ষ, লাইব্রেরি, বিজ্ঞানাগার, কম্পিউটার ল্যাব, মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম, শিক্ষকদের কমনরুম, অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষের অফিস কক্ষ, ওয়াশরুম জোন, হিসাব রক্ষকের কক্ষ রয়েছে। পাশাপাশি স্কুলটির প্রধান ফটক, সীমানা প্রাচীর, জিমনেশিয়াম, অভিভাবকদের বসার স্থানও নির্মাণ করা হয়।

এ ছাড়া পুরো প্রতিষ্ঠানকে নজরদারি করতে নতুন এই একাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবনটিতে বসানো হয় সিসি ক্যামেরা এবং স্কুলটির আধুনিকায়নের স্বার্থে আরও ১১ শতাংশ জমি কেনা হয়।

বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ১১৩২ জনে এসে দাঁড়িয়েছে, যেখানে শুরুতে এর সংখ্যা ছিল ৩০০ জন। এখন শিক্ষার্থীরা শেখার সঠিক পরিবেশ পাচ্ছে এবং তাদের ফলাফল উল্লেখযোগ্যভাবে ভালো হচ্ছে।

২০১৮ সালে এসএসসি পরীক্ষায় ৭৪ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়, যাদের সবাই উত্তীর্ণ হয় এবং আটজন গোল্ডেন এ প্লাস-সহ ৭৩ জনই এ গ্রেডে উত্তীর্ণ হয়। একই বছর জেএসসিতে ১০৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়ে ৫৩ জনই এ প্লাস অর্জন করে এবং অংশগ্রহণকারী সবাই কৃতকার্য হয়। অপরদিকে পিএসসিতে ৬৫ জন অংশ নেয়। যাদের মধ্যে ৬২ জনই এ প্লাস পায় এবং বাকি তিনজন এ গ্রেডে উত্তীর্ণ হয়।

ফাকল পুলিশ লাইন্স স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষ সুরেন্দ্রনাথ বর্মণ জানান, আমাদের স্কুলের নতুন একাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবনটি বাচ্চাদের বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশে, আনন্দের সাথে শিক্ষা লাভের ক্ষেত্রে, একই সাথে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের একে অপরের সাথে যোগাযোগের জন্য এবং শিশুদের নিরাপত্তা, যত্ন নেওয়ার জন্য যথাযথ ডিজাইন করে নির্মাণ করা হয়েছে এবং তা শিশুর শারীরিক ও মানসিক বিকাশের জন্য সহায়ক।

Source: Poriborton