ট্রাম্পকে কিম’র আল্টিমেটাম

উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচি বন্ধে সমঝোতার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে সময়সীমা বেধে দিয়েছেন উত্তর কোরিয়া প্রেসিডেন্ট কিম জং উন। অন্যথায়, এ ব্যাপারে আগের মতো ‘উত্তেজনাকর’ অবস্থানে ফিরে যাবেন তিনি। রয়টার্স।কিম বলেন, ‘আমি আবারও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্পের সঙ্গে বসতে রাজি আছি। তবে সেক্ষেত্রে যুক্তরাষ্টকে সঠিক মনোভাব নিয়ে আসতে হবে। তাদের মনোভাবে পরিবর্তন হয় কিনা তা দেখতে আমি চলতি বছরের শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করবো।’এর আগে বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, তিনি উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ নেতা কিম জং উনের সঙ্গে তৃতীয়বার বৈঠক করার বিষয়টি বিবেচনা করছেন। ওভাল অফিসে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইনের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেছেন।ট্রাম্প বলেন, ‘এটা হতে পারে। তৃতীয় একটি সম্মেলন হতে পারে এবং এটি হতে পারে ধাপে ধাপে। এটা দ্রুত কোনো প্রক্রিয়া নয়। আমি কখনো বলিনি এটা হবে না।’ তিনি বলেন, ‘আমরা উত্তর কোরিয়া ও কিম জং উনের সঙ্গে পরবর্তী সম্ভাব্য বৈঠক নিয়ে আলোচনা করব।’ গত বছরের মাঝামাঝি সিঙ্গাপুরে ট্রাম্প ও কিমের মধ্যে প্রথম বৈঠকটি হয়।এরই ধারাবাহিকতায় ফেব্রুয়ারিতে পরমাণু অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণের আলোচনার জন্য ভিয়েতনামের হ্যানয়ে দুই শীর্ষ নেতার মধ্যে দ্বিতীয় বৈঠক হয়। তবে কোনো সমঝোতা না হওয়ায় নির্ধারিত সময়ের আগেই বৈঠক থেকে বের হয়ে যান ট্রাম্প।
উত্তর কোরিয়ার ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা সহজ করা হবে কি না জানতে চাইলে ট্রাম্প বলেন, ‘কিছু মানবিক বিষয় নিয়ে’ এবং উত্তর কোরিয়াকে দক্ষিণ কোরিয়ার খাদ্য সহায়তা নিয়ে তিনি ও মুন আলোচনা করছেন। মুনকে সঙ্গে নিয়ে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে ত্রিদেশীয় শীর্ষ সম্মেলনেরও সম্ভাবনার কথাও এসময় জানান ট্রাম্প। নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা এটা সব সময় বাড়াতে পারব, তবে এ মুহূর্তে আমি তা করতে চাচ্ছি না।